Home / Uncategorized / নায়িকা একার বাসা থেকে ইয়াবা ও গাঁজা উদ্ধার

নায়িকা একার বাসা থেকে ইয়াবা ও গাঁজা উদ্ধার

রাজধানীর হাতিরঝিলে চিত্রনায়িকা একার বাসা থেকে নির্যাতনের শিকার এক গৃহকর্মীকে উদ্ধারের পর ওই বাসা থেকে ৫ পিস ইয়াবা ও ৫০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করেছে হাতিরঝিল থানা পুলিশ। শনিবার (৩১ জুলাই) সন্ধ্যায় হাতিরঝিল থানা পুলিশ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। এ ঘটনায় মাদক নিয়ন্ত্রণ ও নির্যাতনের দুইটি মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

 এর আগে বিকেলে ফোন পেয়ে চিত্রনায়িকা একার বাসা থেকে নির্যাতনের শিকার এক গৃহকর্মীকে উদ্ধার করে পুলিশ। নির্যাতিতা হাজেরা বেগম নামে (৩৫) ওই নারীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এই ঘটনার পরেই অভিযুক্ত চিত্রনায়িকা একাকে আটক করে হাতিরঝিল থানা পুলিশ।

 
এ বিষয়ে কথা হলে হাতিরঝিল থানার পরিদশর্ক (অপারেশন) গোলাম আজম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শনিবার বিকেলে এলাকাবসী ট্রিপল নাইনে ফোন দিয়ে নির্যাতনের ঘটনাটি জানায়। এরপর উলন রোডের বন্ধু নিবাসের নবম তলায় চিত্রনায়িকা একার বাসা থেকে ওই গৃহকর্মীকে উদ্ধার করা হয়।
তিনি আরও জানান, তার বাম হাতে ও মাথায় ভারি কোনো বস্তু দিয়ে আঘাত করা হয়। উদ্ধারের পর তাকে চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে আবার থানায় নিয়ে আসা হয়। ঘটনার পরপরই অভিযুক্ত একাকে আটক করা হয়। হাজেরার বাড়ি শেরপুর সদর উপজেলার হরিণধরা গ্রামে। বর্তমানে স্বামীকে নিয়ে উলন রোডে থাকেন। তার স্বামী রফিকুল ইসলাম পেশায় রিকশাচালক।

এদিকে, নির্যাতনের শিকার গৃহকর্মী হাজেরা বেগম বলেন, কয়েকটি বাসায় ছোটা বুয়া হিসেবে কাজ করেন তিনি। উলন রোডে নায়িকা একার বাসাতেও তিন মাস ধরে কাজ করছিলেন। শনিবার দুপুরের পরে ওই বাসায় কাজে গিয়ে তার পাওনা ৫ হাজার টাকা চান তিনি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এক পর্যায়ে ইট দিয়ে তার মাথায় ও হাতে আঘাত করেন একা।

হাসপাতালে তার স্বামী রফিকুল ইসলাম জানান, হাজেরা ওই বাসায় দুপুর বেলায় কাজ করতে যেতো। কিন্তু আজকে সকালে সে ওই বাসায় যায়। সেখানে গিয়ে দেখে একা বাসা পাল্টানোর জন্য মালামাল গোছাচ্ছিলেন। এজন্য তাকে সারাদিন ওই বাসায় কাজ করতে বলেন।


কিন্তু সে থাকতে অস্বীকার করলে তাকে দিয়ে আর কাজ করাবেন না বলে জানিয়ে দেন। তখন সে তার পাওনা ৫ হাজার টাকা চাওয়াতে ইট দিয়ে আঘাত করে। এরপর এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পেয়ে তিনি ওই বাসায় গিয়ে আহত স্ত্রীকে দেখতে পান।

Check Also

পাবজি গেম খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বে খুন

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা ঈশ্বরচন্দ্রপুর মোবাইল ফোনে পাবজি গেম খেলাকে কেন্দ্র করে সহিদুল ইসলাম (৪৫) …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *